স্নেহের পরশ (Sneher Paras) প্রকল্প ও আবেদন পদ্ধতি

কোভিড-১৯ পরিস্থিতির সঙ্গে লড়তে বিগত ২৪/০৩/২০২০ থেকে সারা দেশ জুড়ে লকডাউন জারি হওয়ার ফলে পশ্চিমবঙ্গের অনেক শ্রমিক পেশার মানুষ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে কাজে গিয়ে আটকে পড়েছেন। এইসমস্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের সাহায্য করার জন্য পশ্চিমবঙ্গ মাইগ্রেন্ট কর্মী সহায়তা যোজনা (কোভিড-১৯) চালু করেছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার যা স্নেহের পরশ প্রকল্প নামেও পরিচিত। স্নেহের পরশ প্রকল্পে এককালীন ১০০০ টাকা ভাতা পাওয়া যাবে।

স্নেহের পরশ স্কিম কার্যকরী থাকার সময়কাল

২০ এপ্রিল ২০২০ থেকে শুরু হয়ে ৩ মে ২০২০ অবধি এই স্কিম কার্যকরী থাকবে।

স্নেহের পরশ স্কিমে কারা আবেদন করতে পারবে

রাজ্যের যেকোনো শ্রমিক, যারা বিগত ২৪/০৩/২০২০ থেকে সারা দেশ জুড়ে লকডাউন এর ফলে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে কাজে গিয়ে আটকে নিরুপায় ও অসহায় অবস্থায় পতিত হয়েছেন, তারা নিচে উল্লিখিত শর্তাবলী পূরণ করলে আবেদন করতে পারবেন।

  • শ্রমিককে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হতে হবে
  • যে সমস্ত শ্রমিকরা যান চলাচল বন্ধ হওয়া ও রাজ্য গুলির মধ্যে চলাচল বন্ধ হওয়ার ফলে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে নিরুপায় ও অসহায় অবস্থায় পতিত হয়েছেন তারা সাহায্যের জন্য আবেদন করবেন।
  • পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হিসাবে প্রমান করতে যারা খাদ্যসাথী নম্বর অথবা এপিক (ভোটার) নম্বর অথবা আধার নম্বর দেবে।
  • ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট/কমিশনার, কেএমসি যদি সন্তুষ্ট হন যে আবেদনকারী সত্যিই নিরুপায় ও অসহায় অবস্থায় পতিত হয়েছেন এবং যিনি একজন পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা তবে তিনি উপযুক্ত বলে বিবেচিত হবেন।

স্নেহের পরশ প্রকল্পে কিভাবে আবেদন করবেন ?

যেহেতু দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে থাকা মাইগ্রেন্ট শ্রমিকদের পক্ষে স্বশরীরে উপস্থিত থেকে এই স্কীমের আবেদনপত্র জমা করা সম্ভব নয়, সেজন্য রাজ্য সরকার পশ্চিমবঙ্গ স্নেহের পরশ নামে মোবাইল অ্যাপ এনেছে। কর্মীরা তাদের মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে স্নেহের পরশ মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন।

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট (www.wb.gov.in) এ স্নেহের পরশ প্রকল্প সহ সম্পর্কিত লিংক দেওয়া আছে। স্নেহের পরশ মোবাইল অ্যাপ এই লিংক থেকে (https://jaibanglamw.wb.gov.in/) ডাউনলোড করতে পারবেন।

আবেদন করার সময় নিচে উল্লেখ করা জিনিস প্রয়োজন হবে

  • আবেদনকারীর ছবি
  • খাদ্যসাথী নম্বর / এপিক (ভোটার) নম্বর / আধার নম্বর
  • ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট এর বিবরণ (যে অ্যাকাউন্টে আর্থিক সহায়তা পেতে চান)
  • মোবাইল নম্বর
  • স্থানীয় এলাকাতে যোগাযোগ করা যাবে এমন ব্যক্তির নাম, সম্পর্ক ও মোবাইল নম্বর ইত্যাদি বিবরণ দিতে হবে যিনি পশ্চিমবঙ্গে থাকেন।

স্নেহের পরশ প্রকল্পে আবেদন প্রক্রিয়াকরণ ও মঞ্জুর প্রক্রিয়া

স্নেহের পরশ মোবাইল অ্যাপে জমা হওয়া আবেদনগুলি ম্যাজিস্ট্রেট/কমিশনার, কেএমসি এর কাছে থাকবে এবং তাঁরা প্রত্যেকটি আবেদন যাচাই করে দেখবেন এবং উপযুক্ত আবেদনগুলি পেমেন্টের জন্য অনুমোদন করবেন। ডিসাস্টার ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্ট অনুমোদিত আবেদন গুলির পেমেন্ট ম্যান্ডেট প্রস্তুত করবে সরাসরি শ্রমিকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা প্রদান করার জন্য। শ্রমিককে টাকা পাঠানোর পর শ্রমিকের কাছে SMS চলে যাবে।


আপনি কি প্রচেষ্টা প্রকল্প সম্পর্কে জানতে চান ? নিচের বোতামে ক্লিক করুন


স্নেহের পরশ বিজ্ঞপ্তি / এই পোস্টে দেওয়া তথ্যের উৎস সম্পর্কে

  • নোডাল ডিপার্টমেন্ট : ডিপার্টমেন্ট অফ ডিসাস্টার ম্যানেজমেন্ট এন্ড সিভিল ডিফেন্স
  • বিজ্ঞপ্তি নম্বর : 106-PSDM&CD/2020
  • বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের তারিখ : ২০ এপ্রিল ২০২০
  • বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের ওয়েবসাইট লিংক / তথ্য সূত্র : www.wb.gov.in

নিচের পোস্ট শেয়ার করার অনুরোধ থাকলো

https://www.facebook.com/digitalbangaliofficial/posts/2821620754626193